অনলাইনে পরীক্ষা: মানতে হবে ৭ শর্ত

ইউজিসি
ইউজিসি। ফাইল ছবি

জেনারেশন ডেস্ক

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের সচিব (অতিরিক্ত দায়িত্ব) ড. ফেরদৌস জামান বলেন, আন্তর্জাতিক স্ট্যান্ডার্ড মেনে অনলাইনে পরীক্ষা নেওয়ার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত হয়েছে। তবে প্রত্যেক বিশ্ববিদ্যালয়কে পরীক্ষা নেওয়ার আগে তাদের সিন্ডিকেট এবং একাডেমিক কাউন্সিলের অনুমোদন নিতে হবে।

তিনি বলেন, অনলাইনে পরীক্ষার পাশাপাশি মৌখিক পরীক্ষাকে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে পরীক্ষার স্বচ্ছতার জন্য সব ধরনের কৌশল নিতে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে বলা হয়েছে। সেজন্য সাতটি শর্ত মানতে হবে। এসব শর্ত বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে পাঠিয়ে দেওয়া হবে। এজন্য একটি সফটওয়্যার তৈরি করার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।

অনলাইনে পরীক্ষা নেওয়ার জন্য যেসব শর্ত মানতে হবে

১। যেকোনো বিষয়ের তত্ত্বীয় ব্যবহারিক পাঠদান অনলাইনে সম্পন্ন হওয়ার পর কালক্ষেপণ না করে তার চূড়ান্ত মূল্যায়ন অনলাইনের মাধ্যমে সম্পন্ন করতে হবে। তবে শুধু যেসব ব্যবহারিক কোর্স হাতে-কলমে কাজ করা ব্যতীত সম্পন্ন করা সম্ভব নয় তা অবশ্যই সুবিধাজনক সময়ে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্লাস করে সম্পন্ন করতে হবে।

২। মূল্যায়নের ক্ষেত্রে সব বিষয়ের বিপরীতে শিক্ষার্থীর সত্যিকারের মেধা ও স্বচ্ছতা নিশ্চিত করার মাধ্যমে চলমান পদ্ধতি ও স্কেল গ্রেড প্রদান করতে হবে।

৩। বিশ্ববিদ্যালয়গুলো তাদের জন্য উপযোগী অনলাইনে পরীক্ষা নেওয়ার সুস্পষ্ট পদ্ধতি গ্রহণ করবে। বাস্তবতার নিরিখে সব সুযোগ সুবিধা বিবেচনায় রেখে যথাযথ নিয়ম অনুসরণ করবে।

৪। যেকোনও তত্ত্বীয় বিষয় এবং হাতে-কলমে কাজ করার প্রয়োজন নেই এমন ব্যবহারিক বিষয়ে চূড়ান্ত নম্বর বা গ্রেডিং অনলাইনে পরীক্ষা নিয়ে প্রদান করা যেতে পারে।

৫। ব্যবহারিক ক্লাসের বিভিন্ন এক্সপেরিমেন্টের ভিডিও সংশ্লিষ্ট বিভাগের ওয়েবসাইটে আপলোড করতে হবে। শিক্ষার্থীদের ইমেইলে এক্সপেরিমেন্টের পুরানো ডেটা প্রেরণ করতে হবে। শিক্ষার্থীরা এসব ডেটা অ্যানালাইসিস করে সংক্ষিপ্ত রিপোর্ট সংশ্লিষ্ট শিক্ষককে প্রদান করবে।

৬। ল্যাবভিত্তিক নয় এমন থিসিস অনলাইনে তত্ত্বাবধান করা যেতে পারে। ল্যাবভিত্তিক থিসিসেরও সুপারভিশন যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে অনলাইনে হতে পারে। থিসিসের হার্ডকপি গৃহীত হওয়ার পর অনলাইনে মৌখিক পরীক্ষা নেওয়া যেতে পারে।

৭। অনলাইন ক্লাস ও পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার জন্য প্রত্যন্ত অঞ্চলে ইন্টারনেট প্রাপ্যতা ও প্রয়োজনীয় গতি নিশ্চিত করা দরকার। এজন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয় যথাযথ কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ জানাতে পারে।

বৃহস্পতিবার (৬ মে) বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) ও বিভিন্ন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যরা জুম প্লাটফর্মে বৈঠক করে এ সিদ্ধান্ত নেন।