ঢাবিতে উন্নয়ন ফি অর্ধেক, গবেষণা জালিয়াতির শাস্তিতে ট্রাইব্যুনাল

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। ফাইল ছবি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চলতি শিক্ষাবর্ষে (২০২০-২১) ক্লাস ছুটি ও গত শিক্ষাবর্ষের উন্নয়ন ফি অর্ধেক করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম সিন্ডিকেট। এছাড়া গবেষণা জালিয়াতির সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকায় তিন শিক্ষকের শাস্তি নির্ধারণে পৃথক দুটি ট্রাইব্যুনাল গঠন করা হয়েছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে অনুষ্ঠিত সিন্ডিকেট সভায় ২৯ অক্টোবর এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সিন্ডিকেটে উপস্থিত একাধিক সদস্য গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তারা জানান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক সামিয়া রহমান, অপরাধ বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক সৈয়দ মাহফুজুল হক মারজানের গবেষণা জালিয়াতির বিরুদ্ধে আইন অনুষদের ভারপ্রাপ্ত ডিন ও সিন্ডিকেট সদস্য অধ্যাপক ড. রহমতউল্লাহকে চেয়ারম্যান করে তিন সদস্যের একটি ট্রাইব্যুনাল গঠন করা হয়েছে।

ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ওমর ফারুকের গবেষণা জালিয়াতির একাডেমিক শাস্তি নির্ধারণের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনজীবী ও সিন্ডিকেট সদস্য এ এফ এম মেজবাহ উদ্দিনকে চেয়ারম্যান করে গঠন করা হয়েছে অপর ট্রাইব্যুনালটি।

এছাড়া সভায় কোভিড-১৯ মহামারির কারণে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ার ক্ষতি পুষিয়ে নিতে এবং শিক্ষকদের সঙ্গে শিক্ষার্থীদের সম্পৃক্ত রাখতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের ক্লাস-ছুটি কমানো হয়েছে।

আসন্ন শীতকালীন ক্লাস ছুটি ১৭ দিনের পরিবর্তে ৭ দিন এবং গ্রীষ্মকালীন ক্লাস ছুটি ৪০ দিনের পরিবর্তে ২০ দিন নির্ধারণ করা হয়েছে। এছাড়া করোনা ভাইরাসের কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে বিভিন্ন বিভাগ/ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থীদের ২০১৯-২০ সেশনের উন্নয়ন ফি ৫০ শতাংশ মওকুফ করা হয়েছে।