তারুণ্যের প্রতিনিধি মাহতাব হোসেন

কুমিল্লা-৫ (বুড়িচং-ব্রাহ্মণপাড়া) আসনে উপ-নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী মাহতাব হোসেন
তারুণ্যের প্রতিনিধি মাহতাব হোসেন
নেতাকর্মীদের নিয়ে আবদুল মতিন খসরুর কবর জিয়ারত করছেন মাহাতাব হোসেন। ছবি: সংগৃহীত

তারুণ্যের প্রতিনিধি বিশিষ্ট শিল্পপতি এবং সমাজসেবক মাহতাব হোসেন। সমাজের সকল শ্রেণি পেশার মানুষের সাথে আন্তরিক সৌহাদ্যপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রেখে মানুষের উন্নয়নে নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন। করোনা মহামারির এই সময়ে তিনি মানুষের কল্যাণে নিবেদিত। শিল্প প্রতিষ্ঠান পরিচালনার মাধ্যমে অসংখ্য বেকার যুককের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করেছেন, মানবিক প্রয়োজনে সবসময় মানুষের পাশে নিবেদিত থেকে কাজ করে যাচ্ছেন মাহতাব হোসেন।

বর্তমানে তিনি কুমিল্লা-৫ (বুড়িচং-ব্রাহ্মণপাড়া) আসনে উপ-নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, সাবেক আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী এডভোকেট আবদুল মতিন খসরুর মৃতত‍্যুতে আসনটি শূন্য হয়। আবদুল মতিন খসরুর উত্তরসূরী হিসেবে নিজের এলাকার মানুষের জন্য কাজ শুরু করেছেন মাহতাব হোসেন।

আজ শুক্রবার (৩০ এপ্রিল) আবদুল মতিন খসরুর কবর জিয়ারত ও আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়ার আয়োজন করেন উপ-নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী মাহাতাব হোসেন।

ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার মাধবপুর ইউনিয়নের মিরপুর গ্রামে নেতাকর্মীদের নিয়ে কবর জিয়ারত শেষে মাহাতাব হোসেন বলেন, প্রিয় নেতার মৃত্যুতে আমরা এক অপূরনীয় ক্ষতির সম্মূখীন হয়েছি। আবদুল মতিন খসরুর শূন‍্যতা কোনদিনও পূরন হবে না। আমরা যারা আওয়ামীলীগ পরিবারের সন্তান, আমরা চেষ্টা করে যাবো তার অসমাপ্ত কাজগুলো সমাপ্ত করার। জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ ধারণ করে জননেত্রেী শেখ হাসিনার উন্নয়নের মহসড়কে আমাদের চলতে হবে। এই অঞ্চলের মানুষের সামগ্রিক মুক্তির মাধ্যমে আমরা প্রিয় নেতার অসমাপ্ত কাজ বাস্তবায়ন সম্ভব বলে মন্তব্য করেন তিনি।

তিনি আরও বলেন কুমিল্লা-৫ আসনের মানুষের অর্থনীতি উন্নয়নের লক্ষে কাজ করতে চাই। অর্থনৈতিক উন্নয়নের মাধ্যমেই সামগ্রিক উন্নয়ন সম্ভব। আমি নৌকা মার্কার মনোনয়ন পেলে আমার প্রথম অঙ্গীকার থাকবে ব্রাহ্মণপাড়া ও বুড়িচংয়ে দুই উপজেলায় বিসিক প্রতিষ্ঠা করে মানুষের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা। পাশাপাশি খসরু ভাইয়ের অসমাপ্ত কাজের মধ্যে রাস্তা-ঘাটের উন্নয়ন ও শিক্ষা ব্যাবস্থার বিস্তার ঘটাতে চাই।

একই সঙ্গে যুব সমাজের সুষ্ঠু ও নিরাপদ জীবন গঠনে সবাইকে নিয়ে কাজ করার আগ্রহ প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, কুমিল্লা- ৫ আসনের বড় একটি অংশ ভারতীয় সীমান্তবর্তী অংশে অবস্থিত। দুই উপজেলার তরুণ ও যুবকরা মাদকের আগ্রাসনে ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে। আমি নির্বাচিত হলে মাদকের ছোবল থেকে সমগ্র সমাজকে মুক্ত করার লক্ষে কাজ করে যাবো।

কবর জিয়ারত শেষে মাহাতাব হোসেন বাজারের ব্যবসায়ী, সাধারণ মানুষ ও সড়কে চলাচলরত গাড়িচালক এবং যাত্রীদের মাঝে মাস্ক ও করোনা সচেতনতায় লিফলেট বিতরণ করেন। এসময় তিনি করোনা মোকাবেলায় সকলকে সরকারের নির্দেশনা মেনে চলতে এবং সচেতন থাকতে আহ্বান জানান।