নিউইয়র্ক টাইমসের বৃত্তি পেলো ২ বাংলাদেশি

জেনারেশন ডেস্ক

মার্কিন গণমাধ্যম নিউইয়র্ক টাইমসের বৃত্তি পেয়েছে ১২ শিক্ষার্থী। তাদের মধ্যে দুজন বাংলাদেশি। বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা উচ্চশিক্ষার জন্য বছরে ১৫ হাজার ডলার করে পাবে। বৃত্তি পাওয়া শিক্ষার্থীদের সবাই দারিদ্র্য, বুলিং, শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে সংকট এবং পারিবারিক শোক মোকাবিলা করে নিজেদের ভবিষ্যতের জন্য গড়ে তুলেছে। তাদের কারও বয়সই ১৮ বছরের বেশি নয়।

বৃত্তি পাওয়া সামিয়া আফরিন প্রায় ১০ বছর আগে পরিবারের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রে যায়। নিউইয়র্কের ব্রুকলিনে একটি পরিবারে বেড়ে উঠেছে। ইউনিভার্সিটি অব রোচেস্টারে রাষ্ট্রবিজ্ঞান নিয়ে পড়বে আফরিন।

আরেক বাংলাদেশি লামিয়া হকের পরিবারও উন্নত ভবিষ্যতের আশায় পাড়ি জমায় যুক্তরাষ্ট্রে। পরিবারের বড় সন্তান লামিয়া এখন ম্যাসাচুসেটসে উইলিয়ামস কলেজে অপরাধ আইন বিষয়ে উচ্চশিক্ষা নেবে।

বৃত্তিপ্রাপ্ত অন্যরা হলো পাকিস্তানের আয়মা আলি, চীনা বংশোদ্ভূত ব্রায়ান ঝ্যাং ও জেনিফার ওয়েং; কাজাখস্তানের এনলিক কাজাশেভা; এস্তোনিয়ার আলেক্স কোয়িভ; ইকুয়েডরের মেয়ে জাইলেন সিনচি; নিউইয়র্কের ব্রনক্সের ডেনিয়েল নাইট ও নিকল রাজগর, টাইগারলিলি হপসন ও জেলিস উইলিয়ামস।

নিউইয়র্ক টাইমস জানিয়েছে, ১৯৯৯ সাল থেকে চালু হওয়া এই বৃত্তি কর্মসূচি মূলত জনসাধারণের দান ও একটি দাতব্য তহবিলের মাধ্যমে পরিচালিত।

সামিয়া ও লামিয়ার মতো বৃত্তিজয়ী অপর ১০ জনও যথেষ্ট প্রতিকূল পরিবেশ মোকাবিলা করে জীবনকে সফল করার চেষ্টায় এগিয়ে যাচ্ছে।