প্রতিটি কমনওয়েলথ স্কলারশিপের বিপরীতে এবার ১০ জন লড়বেন

নিজস্ব প্রতিবেদক
কমনওয়েলথ স্কলারশিপ

বহুল কাঙ্ক্ষিত আন্তর্জাতিক স্কলারশিপ ‘কমনওয়েলথ স্কলারশিপ ২০২১’-এর জন্য ৩৩৮ জন প্রার্থী আবেদন করেছেন। এবার ৩৩ জনকে এ স্কলারশিপ দেয়া হবে। অর্থাৎ, প্রতিটি স্কলারশিপের জন্য ১০ জন প্রার্থী লড়বেন।

আবেদনের শেষ দিনে বৃহস্পতিবার (৭ জানুয়ারি) বিকেল ৪টা পর্যন্ত এ আবেদন জমা পড়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি) সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

কমিশন সূত্রে আরও জানা গেছে, গত ১৯ ডিসেম্বর কমনওয়েলথ স্কলারশিপ-২০২১ এর জন্য বাংলাদেশি শিক্ষার্থী ও আগ্রহীদের কাছে আবেদন চেয়ে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে ইউজিসি।

জানা গেছে, করোনার কারণে এবার শুধু পিএইচডি প্রোগ্রামের স্কলারশিপ দেয়া হবে। সেজন্য অন্যান্য বারের তুলনায় পিএইচডি প্রোগ্রামে আবেদন সংখ্যা বেশি বলে জানান ইউজিসির কর্মকর্তারা।

আবেদনকারীদের মধ্য থেকে যোগ্য প্রার্থীদের তালিকা ১২ জানুয়ারির মধ্যে ইউজিসির ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে। এরপর পূর্বনির্ধারিত সূচি অনুযায়ী ১৪ জানুয়ারি সাক্ষাৎকার নেয়া হবে। ৫টি বোর্ডে ভাগ করে এ সাক্ষাৎকার নেয়া হবে।

এ বিষয়ে ইউজিসির সচিব (অতিরিক্ত দায়িত্ব) ড. ফেরদৌস জামান বলেন, ‘এবার করোনার কারণে মাস্টার্স প্রোগ্রামের স্কলারশিপ দেয়া হয়নি। এজন্য পিএইচডিতে আবেদন সংখ্যা বেশি পড়েছে। তবে ১৪ তারিখ একদিনেই আমরা সাক্ষাৎকার শেষ করতে পারব বলে আশা করছি।’

দীর্ঘদিন ধরে কমনওয়েলথের মাধ্যমে যুক্তরাজ্যে উচ্চশিক্ষায় স্কলারশিপ দেয়া হচ্ছে। দেশটির বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে কমনওয়েলথ স্কলারশিপের মাধ্যমে পিএইচডি ও মাস্টার্সে পড়াশোনার জন্য যাবতীয় অর্থ দেয় ইউকে ডিপার্টমেন্ট ফর ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট (ডিএফআইডি) নামে একটি প্রতিষ্ঠান।