‘বিডিইউ’র শিক্ষার্থীরা চতুর্থ শিল্প বিপ্লবে নেতৃত্ব দেবে’

নিজস্ব প্রতিবেদক
‘চতুর্থ শিল্প বিপ্লবে নেতৃত্ব দেবে বিডিইউ’র শিক্ষার্থীরা’

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটির (বিডিইউ) উপাচার্য অধ্যাপক ড. মুনাজ আহমেদ নূর চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের নেতৃত্ব দেয়ার সক্ষমতা অর্জনে শিক্ষার্থীদের গুরুত্ব দেয়ার কথা বলেছেন। চতুর্থ শিল্প বিপ্লবে বাংলাদেশের নেতৃত্ব দেয়ার সক্ষমতা অর্জনে বিডিইউ’র শিক্ষার্থীদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে হবে। আর সেই লক্ষ্যে শিক্ষার্থীদের এখন থেকে প্রস্তুতি নেয়ার আহ্বান জানান তিনি।

শনিবার (১২ ডিসেম্বর) বিকেলে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও বিজয় দিবস ২০২০ উপলক্ষে ভার্চুয়ালি বিডিইউ শিক্ষার্থীদের মধ্যে আয়োজিত প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার ফলাফল ঘোষণার সময় উপাচার্য এ আহ্বান জানান।

এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মো. আশরাফ উদ্দিন, সিনিয়র সিস্টেম অ্যানালিস্ট মুহাম্মদ শাহীনূল কবীর, বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক মো. আশরাফুজ্জামান, প্রোগ্রামার অনিত কুমার রায়সহ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে উপাচার্য মুনাজ আহমেদ বলেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লবে বাংলাদেশের নেতৃত্ব প্রদানের সক্ষমতা অর্জনে দক্ষ মানবসম্পদ তৈরিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি প্রতিষ্ঠার শুরু থেকেই কাজ করে আসছে। ইতোমধ্যে চতুর্থ শিল্প বিপ্লব উপযোগী দুটি প্রোগ্রাম ইন্টারনেট অব থিংস ও আইসিটি ইন এডুকেশন-এর মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের জন্য প্রস্তুত করা হচ্ছে। বিগ ডেটা অ্যানালাইসিস অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট প্রোগ্রাম চালু করার বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ অথরিটি (সিন্ডিকেট) অনুমোদন দিয়েছে। ধীরে ধীরে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স, রোবটিক্স, মেকাট্রনিক্সসহ চতুর্থ শিল্প বিপ্লব উপযোগী প্রোগ্রামগুলো এই বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল পাঠ্য হিসেবে বিবেচিত হবে।

তিনি বলেন, বর্তমান বিশ্বে টিকে থাকতে হলে আমাদের অবশ্যই প্রযুক্তিকে সঙ্গে নিয়ে টিকে থাকতে হবে। এই বিষয়টি অনুধাবন করে প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশকে ডিজিটাল বাংলাদেশে রূপান্তর করেছেন। এখন আমরা প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের নেতৃত্বে চতুর্থ শিল্প বিপ্লবে বিশ্বকে নেতৃত্ব দেয়ার দিকে এগিয়ে যাচ্ছি।

প্রতিযোগিতায় বিশ্ববিদ্যালয়ের দুটি প্রোগ্রামের বিভিন্ন সেমিস্টারের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেন। প্রত্যেক ব্যাচের শিক্ষার্থীরা তাদের নিজ নিজ ব্যাচের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করেন।

প্রতিযোগিতায় আইওটি প্রোগ্রামের (২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের) শিক্ষার্থীদের মধ্যে জুনাইদ আবেদীন ইদমাম প্রথম, মো. তাসলিম আরিফ দ্বিতীয় এবং আবু সালেহ মোহাম্মদ মূসা তৃতীয় স্থান অর্জন করেন। একই প্রোগ্রামের (২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের) শিক্ষার্থীদের প্রতিযোগিতায় তৌসিফ মাহমুদ ইমন প্রথম, তাসনিমা হামিদ দ্বিতীয়, মো. শাহরিয়ার হোসাইন অপু তৃতীয় স্থান অর্জন করেন।

অন্যদিকে আইসিটিই প্রোগ্রামের (২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের) শিক্ষার্থীদের প্রতিযোগিতায় ফাতেমা তুজ জোহরা মীম প্রথম, মো. মুরাদ হাসান দ্বিতীয় ও আবদুল্লাহ রাইয়ান তৃতীয় স্থান অর্জন করেন এবং একই প্রোগ্রামের (২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের) শিক্ষার্থীদের প্রতিযোগিতায় মুহতামিম হাওলাদার প্রথম, সুরাইয়া জাহান দ্বিতীয় এবং মো. তাহমিদ তৃতীয় স্থান অর্জন করেন। এর মধ্যে প্রত্যেক ব্যাচের প্রথম স্থান অর্জনকারীকে পুরস্কার প্রদান করা হবে।