বেতন গ্রেড পরিবর্তন চান বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কর্মচারীরা

জেনারেশন রিপোর্ট

প্রশাসনিক কর্মকর্তার পদমর্যাদা ও বেতন গ্রেড পরিবর্তন, পরিচালনা পরিষদ বা গভর্নিং বডিতে সদস্য রাখা ও ‘চাকরীবিধি ২০১২’ কার্যকর করাসহ পাঁচ দফা দাবি বাস্তবায়ন চায় বাংলাদেশ বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান তৃতীয় শ্রেণির কর্মচারী পরিষদ।

শুক্রবার (১৮ জুন) সকালে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে তারা এই দাবি জানানো হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন পরিষদের সভাপতি মো. রফিকুল ইসলাম তালুকদার মন্টু। সভায় পরিষদের অন্যান্য সদস্যরাও উপস্থিত ছিলেন।

দাবিগুলো হলো- তৃতীয় শ্রেণীর কর্মচারীদের ন্যূনতম বেতন গ্রেড ১১তম প্রদান করা এবং প্রণীত চাকরীবিধি অনুসরণ করে তৃতীয় শ্রেণির কর্মচারীদের পদের সংখ্যা বৃদ্ধি করা; পদের নাম পরিবর্তন করে প্রশাসনিক কর্মকর্তা করা এবং পেশাগত উন্নয়নের কম্পিউটারসহ অন্যান্য উচ্চতর প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা; পূর্বঘোষিত প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী চাকরি বিধি ২০১২ দ্রুত বাস্তবায়ন করা এবং ম্যানেজিং কমিটি বা গভর্নিং বডিতে কর্মচারীদের সদস্য রাখার ব্যবস্থা করা; শিক্ষাগত যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে বিভাগীয় কোটায় শিক্ষকসহ অন্যান্য পদে পদোন্নতি দেওয়া; এবং সব এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ করা।