সবাই পাস, জিপিএ-৫ এক লাখ ৬১ হাজারের বেশি

নিজস্ব প্রতিবেদক
এইচএসসির ফল
ফাইল ছবি

পরীক্ষা ছাড়াই এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে। প্রকাশিত ফলাফলে এবার দেড় লাখেরও বেশি শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ পেয়েছেন। এবার মোট ১ লাখ ৬১ হাজার ৮০৭ জন শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ পেয়েছেন। জিপিএ-৫ এর শতকরা হার ১১.৮৩ শতাংশ, গতবছর যা ছিল ৩.৫৪ শতাংশ।

শনিবার সকালে রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে ফলের সারসংক্ষেপ তুলে ধরেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। এরপর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে ভার্চুয়ালি ফলাফলের অনুলিপি তুলে দেন শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যানরা। শেখ হাসিনার ফলের অনুলিপি গ্রহণ করেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। প্রধানমন্ত্রী তার সামনে থাকা বাটন চেপে ফলাফল ঘোষণার কার্যক্রম উদ্বোধন করেন।

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে শিক্ষামন্ত্রী ছাড়াও শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, শিক্ষা সচিব মো. মাহবুব হোসেন, কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আমিনুল ইসলাম খান ছাড়াও বিভিন্ন বোর্ডের চেয়ারম্যান ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রকাশিত ফলে মোট জিপিএ-৫ পাওয়াদের মধ্যে সাধারণ ৯টি বোর্ডে পেয়েছেন এক লাখ ৫৩ হাজার ৬১৪ জন, মাদরাসা শিক্ষাবোর্ডের অধীনে আলিমে পেয়েছেন ৪ হাজার ৪৮ জন এবং কারিগরি বোর্ডের অধীনে এইচএসসি, এইচএসসি (ভোকেশনাল/বিএম) জিপিএ-৫ পেয়েছেন ৪ হাজার ১৪৫ শিক্ষার্থী।

গতবছর এইচএসটি ও সমমানে পাসের হার ছিল ৭৩ দশমিক ৯৩ শতাংশ। তার আগের বছর ছিল ৬৬ দশমিক ৬৪ শতাংশ।

গতবছর জিপিএ-৫ পেয়েছিল ৪৭ হাজার ২৮৬ জন। তার আগের বছর এই সংখ্যা ছিল ২৯ হাজার ২৬২ জন।

করোনা ভাইরাসের কারণে ২০২০ সালের এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা বাতিল করা হয়। পরে এবার জেএসসি-এসএসসির গড় ফলের ভিত্তিতে ২০২০ সালের এইচএসসির ফল প্রকাশের সিদ্ধান্ত নেয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়। আজ সেই ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে। প্রকাশিত ফলাফলে শতভাগ শিক্ষার্থী পাস করেছেন।